পেশীর ব্যথা দূর করতে সক্ষম এমন ৫টি খাবার

(লাইফস্টাইল-বিডি.কম )
অধিক পরিশ্রম, ভারী কাজ বা ব্যায়াম করে ক্লান্তিকর একটি দিনের শেষে অনেকেই মাসল ক্র্যাম্প অর্থাৎ পেশীতে টান পড়ে ব্যথায় ভোগেন। শরীরের কিছু অংশে পেশীতে টান বেশি পড়তে দেখা যায়, যেমন হাত বা পা। কয়েক সেকেন্ড থেকে শুরু করে ঘন্টা অধিক থাকতে পারে এই সমস্যাটি। বেশীরভাগ ক্ষেত্রে প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে তা হলেও ছোট বাচ্চাদেরও পেশীতে টান পড়তে পারে। বিশেষ করে ঘুমের মাঝে হাঁটুর নিচের পেশীটিতে টান পড়ার অভিজ্ঞতা হয় অনেকেরই। এতে ক্ষতি বেশি না হলেও বেশ কিছুটা সময় অসহ্য যন্ত্রনা ভোগ করতে হয়।

পেশীতে টান পড়ার পেছনে বেশীরভাগ সময়েই দায়ী হলো খাদ্যভ্যাস। এমন কিছু খাবার আছে যেগুলো নিয়মিত খেলে পেশী সুস্থ থাকে ও টান পড়া দূর হয়। বিশেষ করে এর জন্য পটাসিয়াম এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার খুবই জরুরী। দেখে নিন পেশীর টান ও ব্যথা দূর করতে প্রয়োজনীয় ৫টি খাবার-

১) পানি
পর্যাপ্ত পানি পান করতে হবে। পানিশূন্যতার কারণে পেশীতে টান পড়তে পারে। এছাড়া ডাবের পানি ও শরবত পান করতে পারেন।

২) কলা
কলা হলো পটাসিয়ামের দারুণ একটি উৎস। কলা শর্করা হজমে সাহায্য করে ও পেশী গঠনে কাজে আসে। এছাড়া পেশী ও স্নায়ুর কার্যকারিতা বজায় রাখতে কলার ভূমিকা রয়েছে। পটাসিয়ামের পাশাপাশি কলায় ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে যা মাসল ক্র্যাম্প দূর করে।

আরও পড়ুন ..

৩) মিষ্টি আলু
কলার মতোই মিষ্টি আলুতেও পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম বেশি পরিমাণে থাকে। এমনকি কলার চেয়ে প্রায় ছয়গুণ বেশি ক্যালসিয়াম থাকে মিষ্টি আলুতে। মিষ্টি আলুর পাশাপাশি সাধারণ আলু এবং মিষ্টিকুমড়াও খেতে পারেন এই উপকারীতা পেতে।

৪) ডালজাতীয় শস্য
বিভিন্ন ধরণের ডাল ও সিমে থাকে উদ্ভিজ্জ প্রোটিন ও ম্যাগনেসিয়াম। এছাড়া ছোলা ও সিমের বিচিতে বেশি পরিমাণে ফাইবার থাকে। এগুলো সাধারণ মাসল ক্র্যাম্পের পাশাপাশি পিরিয়ড ক্র্যাম্পের ব্যথাও কমায়।

৫) বাদাম
পেশী স্বাস্থ্যের জন্য বিভিন ধরণের বাদাম খুব উপকারী, কারণ বাদামে থাকে উচ্চ মাত্রায় প্রোটিন ও ম্যাগনেসিয়াম। ম্যাগনেসিয়ামের অভাবেই সাধারণত পেশীর দুর্বলতা, ক্র্যাম্পস ও খিঁচুনি হয়ে থাকে। তাই নিয়মিত বাদাম খেলে এ সমস্যাটি দূর হয়।

সূত্র: এনডিটিভি

Leave a Reply